ঢাকাশুক্রবার , ২৮ জুলাই ২০২৩
  1. অন্যান্য
  2. অর্থনীতি
  3. আইন আদালত
  4. আন্তর্জাতিক
  5. আরো
  6. করোনা ভাইরাস
  7. ক্রিকেট
  8. খেলাধুলা
  9. জাতীয়
  10. টেনিস
  11. তথ্য প্রযুক্তি
  12. ধর্ম
  13. নির্বাচনের মাঠ
  14. ফিচার
  15. ফুটবল

সাভারে যাত্রীদের মুঠোফোন ঘেঁটে সন্দেহজনক তথ্য খুঁজছে পুলিশ

admin
জুলাই ২৮, ২০২৩ ৫:৫৬ পূর্বাহ্ণ
Link Copied!

ঢাকা-আরিচা মহাসড়কের বিভিন্ন স্থানে বসেছে পুলিশের তল্লাশিচৌকি। ঢাকামুখী বাস, মাইক্রোবাস, মোটরসাইকেলসহ বিভিন্ন পরিবহনে তল্লাশি চালাচ্ছেন আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্যরা। জিজ্ঞাসাবাদের পাশাপাশি মুঠোফোন ঘেঁটে সন্দেহজনক তথ্য খুঁজছেন তাঁরা। সদুত্তর না পেলে আটকে রাখা হচ্ছে। পরে আবার অনেককে ছেড়েও দেওয়া হচ্ছে।

ঢাকা জেলার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (ক্রাইম অ্যান্ড অপস ও ট্রাফিক উত্তর বিভাগ) আবদুল্লাহিল কাফী প্রথম আলোকে বলেন, আজ শুক্রবার ঢাকায় দুটি দলের কর্মসূচি আছে। কর্মসূচিকে কেন্দ্র করে অনাকাঙ্ক্ষিত ঘটনা রোধে তল্লাশি জোরালো করা হয়েছে। বিভিন্ন যাত্রীপরিবহনে তল্লাশি চালিয়ে সন্দেহভাজন ব্যক্তিদের জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে। সন্তোষজনক উত্তর পেলে ছেড়ে দেওয়া হচ্ছে। তবে এখনো কাউকে আটক বা গ্রেপ্তার করা হয়নি।

আজ ঢাকা-আরিচা মহাসড়কের নবীনগর, সাভার, হেমায়তেপুর, আমিনবাজার এলাকায় তল্লাশি চালাচ্ছেন আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্যরা। এ ছাড়া সাভারের বিরুলিয়া, আশুলিয়ার ধউর, জিরানী, জিরাবো ও বাইপাইলেও তল্লাশি করা হচ্ছে।

আজ সকালে আমিনবাজার ২০ শয্যাবিশিষ্ট হাসপাতালের সামনে গিয়ে দেখা যায়, ঢাকার অন্যতম এ প্রবেশপথে মহাসড়কের ঢাকামুখী লেনে তল্লাশিচৌকি বসিয়ে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্যরা ঢাকাগামী পরিবহনের যাত্রীদের জিজ্ঞাসাবাদ করছেন। পুলিশ সদস্যদের অনেকে যাত্রীদের মুঠোফোন ঘেঁটে দেখছেন, তল্লাশি করছেন ব্যাগ, ঢাকায় যাওয়ার কারণ জানতে চাইছেন। সন্তোষজনক উত্তর না পেলে অনেককে নিয়ে যাওয়া হচ্ছে আমিনবাজার ২০ শয্যাবিশিষ্ট হাসপাতাল চত্বরে। সকাল সাড়ে ৬টার দিকে সেখান থেকে পুলিশের একটি প্রিজন ভ্যানে প্রায় অর্ধশত ব্যক্তিকে নিয়ে যাওয়া হয়। এ ছাড়া সকাল ৮টা ৪০ মিনিটে অপর আরেকটি প্রিজন ভ্যানে ২০-২৫ জনকে হাসপাতাল চত্বর থেকে নিয়ে যায় পুলিশ।

সাভারের আমিনবাজার এলাকার তল্লাশিচৌকিতে সকাল ৬টা থেকে সাড়ে ৮টা পর্যন্ত দুই দফায় পুলিশের প্রিজন ভ্যানে করে আটকে রাখা অর্ধশত ব্যক্তিকে নিয়ে যেতে দেখা যায়। এ সময় ভ্যানের ভেতর থেকে কয়েকজন বলেন, ‘দল করি বইলা হেরা গ্রেপ্তার করল।’

আমিনবাজার তল্লাশিচৌকিতে সকাল ৮টার দিকে সাভারের ইকবাল হোসেন নামের এক ব্যক্তির মুঠোফোন নিয়ে ঘাঁটাঘাঁটি করতে দেখা যায় এক পুলিশ সদস্যকে। কিছুক্ষণ পর তাঁকে যেতে দেওয়া হয়। প্রায় একই সময়ে ধামরাই থেকে ঢাকার মিরপুরে যাচ্ছিলেন মো. রাসেল। পুলিশের এক সদস্য তাঁর মুঠোফোনে সন্দেহজনক তথ্য খোঁজেন। মো. রাসেল প্রথম আলোকে বলেন, পুলিশ কিছুক্ষণ তল্লাশি করে দেখল। এরপর ছেড়ে দিয়েছে।

সাভার থানা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক গোলাম মোস্তফা অভিযোগ করেন, সাভারে পুলিশ বিএনপির নেতা-কর্মী পরিচয় পেলেই আটক করছে। আমিনবাজারে বাসে তল্লাশি করে নেতা-কর্মীদের আটক করা হচ্ছে।